Skip to content Skip to sidebar Skip to footer

কবিতা: আন্তঃলিঙ্গ আমি

আন্তঃলিঙ্গ  আমি

বাঁধন শিকদার

জন্ম থেকে আমি অবহেলিত ,
আমার জন্মে হয়নি আজান ,বাজেনি শঙ্খধ্বনি।
জন্মের পর জন্মদাতার মুখে,
হাসির বদলে ছিল বিদ্বেষ।
সবার চোখে ছিলাম বিষ ,কেউ করে নি আমাকে তাদের মধ্যেমনি।

গ্রাম থেকে শহরে গিয়েছি কত ডাক্তারের নিকট ,
কেউ দিতে পারেনি আমার শরীরের ব্যামোর ওষুধ ।
মোটা মোটা বড় পৃষ্ঠায় লিখেছে হাজার দাবাই।
অসহ্য লাগলেও সেসব দাবাই,
গিলেছি বহুত! সেড়ে উঠার আশাই।
আমি কখনো ভালো হয়নি ,
কেউ পারেনি ধরতে সেই মহাষৌধ।
শুধু পকেট ভরেছে ডাক্তারের ,
আমাকে ব্যবহার করে করেছে কামাই।

সময়ের পরিক্রমায় ধীরে ধীরে যখন বড় হতে লাগলাম ,
পরিবার ,সমাজ ও যেন তত দূরে যেতে লাগল ।
আমার শরীর যেন গোটা এক অভিশাপ ,
সেটা বুঝিয়ে দিতে কেউ ভুল করেনি ।
নিজ ঘরে ও সতেরোর পড়ে ,পড়ল আগল।

কেউ আমাকে ভালোবেসে বাহুডোরে করেনি আপন ।
বরং এই সমাজের টিটকারী ,চোখ রাঙানি ,
নিত্য আমাকে পিষ্ট করেছে ।

হ্যাঁ আমি আন্তঃলিঙ্গ-
আমার দুই পায়ের ফাঁকে অবস্থিত,
নারী ও পুরুষ চিহ্নিত করার উভয় চিহ্ন।
তবু ও আমি  নয়, শরীরে সমস্ত নারী বা পুরুষ ।

সবাই শুধু খুঁজেছে আমার যৌন পরিচয় ।
এই সমাজে নারী-পুরুষের বাহিরে,
সবই যেন মিছে পরিচয় ।
কেউ আমাকে হিজরা – ছক্কার বাহিরে ,
দেয়নি মানুষ  নাম ।
লিঙ্গের গবেষনায় আর কত ,
মোদের গলায় দিবে ফাঁস?

 

What's your reaction?
0Smile0Angry0LOL0Sad1Love

1 Comment

  • Raj Dutta
    Posted 12/01/2021

    Love has no gender . Love is blind

Add Comment