Skip to content Skip to sidebar Skip to footer

ফাগুনের আগুন

লেখক: মাসুদ রানা

 

দেখতে দেখতে জীবনে আরেক বসন্ত আসলো। প্রথম বসন্তের দিন কি করে কবে শুরু হয়েছিলো তা কিন্তু সত্যি মনে নেই। তবে প্রথম প্রেমিককে যেদিন ছুঁয়েছিলাম সেদিন বুঝেছিলাম বসন্তের আগমন কি মধুর! কতটা আদরে প্রেম আসে, কতটা স্নেহ আর উষ্ণতায় মনের মাঝে প্রেম ও বিরহের বাঁশি বেজে উঠে। এরপর কাঠ-ফাটা রোদ্দুর আর বসন্তের আগমন শেষ হয়নি আশা যাওয়ার। কোন ঋতুতে কোন প্রেম এসেছে। আমি কাকে ভালোবেসেছি, কে আমারে ভালোবেসেছে, সে হিসেব বড্ড শক্ত। তবু যে আমারে একদিও বলেছিলো তোমারে ভালোলাগে, ভালোবাসতে ইচ্ছে করে, আমি তারেও মনের কোণে রেখেছি। কি জানি সত্য সত্যি সমইয় সুযোগ পেলে সেই হতো আমার সবচেয়ে আপনজন। যাদের কারো কাছে আসতে পেরেছি, ছুঁয়ে দেখেছি তাঁর একান্ত নির্জনতা সেও আমার মনের ঘরে একটা কুঠুরিতে বসে, আছে। জানি আমি এ হয়তো দ্বিচারিতা কিংবা কেও বলবে বহুগামিতা। কিন্তু আমি জানি এ গমন শুধু বসন্তের বাতাসের মতো। এর কোনটাই আমারে ধরে রাখতে চাইনি। যদি একবারো মন থেকে রাখতে চাইতো আমি চলে যাবো এত স্পর্ধাতো আমার কখনো ছিলোনা। হয়তো আমিও ঋতুর মতোই বছরে একবার আশাটাই মূখ্য। রোজকার দিনে কাছাকাছি থাকা আমাকে হয়তো মানায় না। আটপৌরে জিবনের গাথা আমার সাথে মিলিয়ে দিলে হয়তো আমি হয়ে যাবো বড্ড বেমানান। কিংশুকের ডাকে ডাকে আমারে যেতে হবে বহুদূরে। যে দূরে কোন প্রেমিক থাকেনা, থাকেনা কোন অবহেলা। অপ্রেম রুদ্ধদার যেখানে সারাবছই বদ্ধ হয়ে থাকে। বসন্ত মৃদু হাওয়া, ভালোবাসা দিবসের ঝড়ো হাওয়া কিংবা স্বৈরাচারী বিরোধি আন্দোলনের গরম রক্ত সকলের হৃদয়ে বসে যাক প্রেমিকার প্রথম চুম্বনের মত। শুধু আপনার কথা ভেবে এ জগতের কোন লাভই হয়না বরং আস্তে আস্তে আপনাকে কেন্দ্র করে আরো সংকীর্ণতার রিক্ততায় আমাদের পড়তে হয়। পরিশেষে………………

আজি ঋতুরাজে নিলাম তুলিয়া প্রাণভরে দিলাম সঁপিয়া যেটুকু আমার নাও নিয়ে নাও তোমারে বুকেতে আমারে ঠাই দাও।

What's your reaction?
0Smile0Angry0LOL0Sad1Love

Add Comment