Skip to content Skip to sidebar Skip to footer

সমকামীদের বিবাহের বৈধতা দিতে যাচ্ছে সুইজারল্যান্ড

দীর্ঘ ৭ বছরের অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে বিবাহের অধিকার পেতে যাচ্ছে সুইজারল্যান্ডের সমকামীরা । ২০১৩ সাল থেকে সুইজারল্যান্ডের দ্বিকক্ষ বিশিষ্ট সংসদে সমলিঙ্গের বিবাহের বৈধতা নিয়ে একাধিকবার পক্ষে-বিপক্ষে জোর বিতর্ক হয়েছে । অবশেষে ১৮ই ডিসেম্বর ২০২০, তারিখে ২৯ তম দেশ হিসেবে সমলিঙ্গের বিবাহের বৈধতার বিল পাস হলো সুইস ফেডারেল সংসদে । এই বিল পাস হওয়ার কারণে এখন সমকামী দম্পত্তিরা আইনি বৈধতার মাধ্যমে বিবাহ করতে পারবেন এবং সন্তান দত্তক নিতে পারবেন । শুধু তাই নয় এই বিলের মাধ্যমে সমকামী নারীরা শুক্রাণু ব্যাংক থেকে শুক্রাণু গ্রহণের অধিকার পাবে । রুপান্তরকামীদের রুপান্তর প্রক্রিয়া সহজ করা হয়েছে এই বিলে । ফলে রুপান্তরকামীদের লিঙ্গ পরিবর্তন করতে আর আদালতের দারস্থ হতে হবে না । প্রয়োজন হবে না ডাক্তারি সার্টিফিকেটেরও । শুধু মাত্র সিভিল রেজিস্ট্রি অফিসগুলোতে একটি ঘোষণা দিয়েই লিঙ্গ পরিবর্তন করতে পারবে । আর ১৬ বছর বয়স হলে লিঙ্গ পরিবর্তন করতে অভিভাবকের সম্মতিরও প্রয়োজন হবে না ।

এই বিলকে স্বাগত জানিয়ে আনন্দ প্রকাশ করেছে LGBTQI+ অধিকারকর্মী এবং মানবাধীকারকর্মীগণ । আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল সুইস বিভাগের পক্ষ্য থেকে টুইট করে দাবি করা হয়েছে, পাশ হওয়া এই বিল LGBTQI+ অধিকার আন্দোলনের ক্ষেত্রে এক ঐতিহাসিক জয় ।

তবে বরাবরই সমকামীদের বিবাহের অধিকারের বিপক্ষে ছিল গোঁড়া অতি রক্ষণশীল রাজনৈতিক দল ফেডারেল ডেমোক্রেটিক ইউনিয়ন । এবারও তারা এই বিল চূড়ান্ত হওয়ার জন্য গণভোটের দাবি জানিয়েছে । সুইস সাংবিধানিক ব্যবস্থায় এই বিলের পক্ষে-বিপক্ষে গণভোট হতেও পারে । তবে গণভোটের জন্য ১০০ দিনের মধ্যে ৫০০০০ স্বাক্ষর সংগ্রহ করতে হবে বিরোধীদের ।

রেইনবো ফ্যামিলি এ্যাসোসিয়েশন এর পক্ষ থেকে ম্যাথিয়াস এরহার্ড বলেন, “যদি গণভোট অনুষ্ঠিত হয় তবুও আমরা প্রস্তুত” । সম্প্রতি পিং ক্রস দ্বারা পরিচালিত একটি জরিপে দেখা গেছে দেশের ৮২ শতাংশ জনগণ এই বিল সমর্থন করেন । তাই গণভোট হলেও বিজয়ের যথেষ্ট সম্ভাবনা রয়েছে ।

সুইজারল্যান্ডে সমকামিতা বৈধতা পায়  ১৯৪২ সালে । ২০০৭ সালে “রেজিস্টার্ড পার্টনারশীপ” বিধান চালু করে দেশটি । কিন্তু এই বিধানের ফলে দুইজন ব্যক্তি শুধুমাত্র পার্টনারশীপে থাকতে পারত এবং কোন সন্তান দত্তক নিতে পারত না । কোন সুইই নাগরিক বিদেশি কোন নাগরিককে বিবাহ করলে তিনিও সুইস নাগরিকত্ব পান । কিন্তু সমকামীদের যেহেতু বিবাহের বৈধতা ছিল না তাই এই সুযোগ সমকামীরা পেত না । কিন্তু এই বিধান চূড়ান্ত হলে সমকামীরাও সমান সুযোগ সুবিধা পাবে ।

সোর্স DW News

What's your reaction?
0Smile0Angry0LOL0Sad3Love

Add Comment